স্থাপত্য ইতিহাস বলতে কী বােঝায়?

স্থাপত্য ইতিহাস বলতে কী বােঝায়? Mark 4 | Class 10
অথবা, স্থাপত্য কর্মের ইতিহাসের উল্লেখযােগ্য বৈশিষ্ট্যগুলি কী কী?

উত্তর:-

ভূমিকা : প্রাচীন স্থাপত্যগুলি হল ইতিহাসের সাক্ষী, তাই স্থাপত্যের ইতিহাস হল অনেকটাই জীবন্ত ইতিহাস।

স্থাপত্য ইতিহাসের বৈশিষ্ট্য : ইউরােপে রেনেসাঁসের সময় থেকেই স্থাপত্য ও স্থাপত্য নির্মাণকার্যে যুক্ত কারিগরদের সম্পর্কে স্থাপত্যের ইতিহাস লেখার কাজ শুরু হয়। এর বৈশিষ্ট্যগুলি হল-

১) প্রতিষ্ঠাকাল : স্থাপত্যের ইতিহাসে মূলত ধর্মীয়, প্রশাসনিকৎবা নান্দনিকতার উদ্দেশ্যে নির্মিত স্থাপত্যগুলির প্রতিষ্ঠাকাল ও  প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্যগুলি চিহ্নিত করা হয়। 

২) ইতিহাস নির্মাণ : স্থাপত্যগুলির মাধ্যমে অতীত ও বর্তমান যুক্ত থাকে বলে স্থাপত্যগুলির প্রতিষ্ঠাকাল থেকে বর্তমানকাল পর্যন্ত সময়ের ইতিহাস রচনায় এগুলির ভূমিকা তুলে ধরা হয়।

৩) স্থাপত্য রীতি : প্রতিটি পৃথক স্থাপত্য রীতির বৈশিষ্ট্য, বিবর্তন ও তার ধারাবাহিকতা তুলে ধরা এই ইতিহাসের বিশেষ লক্ষণ। এ প্রসঙ্গে ইউরােপের স্থাপত্যে ডােরীয় রীতি, গথিক রীতি, রােমান ও ভিক্টোরীয় রীতির কথা বলা যায়। 

৪) জাতীয় গর্ব : বিভিন্ন দেশের সেরা স্থাপত্যগুলি কীভাবে সেই দেশের মর্যাদা বৃদ্ধি করে বা জাতীয় আন্দোলনে উৎসাহের সচঞার করে তা তুলে ধরাও এই ইতিহাসের বৈশিষ্ট্য। 

উপসংহার : স্থাপত্যের ইতিহাসচর্চার সঙ্গে সঙ্গে অর্থনীতি, রাজনীতি ও সংস্কৃতির ইতিহাসও জড়িয়ে থাকায় স্থাপত্য ইতিহাস সামগ্রিক ইতিহাসের একটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ অংশ।


Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Class 10, Class 10 History, অধ্যায় ১ - ইতিহাসের ধারণা

Leave a Comment

Your email address will not be published.