উপমহাদেশে নতুন পাথরের যুগে মানুষের জীবনযাত্রা সম্পর্কে বর্ণনা দাও।

উপমহাদেশে নতুন পাথরের যুগে মানুষের জীবনযাত্রা সম্পর্কে বর্ণনা দাও। Mark 5 | Class 6

উত্তর:-

সূচনা: পাথরের যুগের শেষ পর্যায় নতুন পাথর বা নব্য প্রস্তর যুগ (Neolithic Age) নামে পরিচিত। 

নতুন পাথরের যুগে আদিম মানুষের জীবনযাপনের ধারা:- 

[1] জীবিকা : ভারতীয় উপমহাদেশে নতুন পাথরের যুগে কুকুর, ভেড়া, গােরু, গাধা প্রভৃতি পশুকে মানুষ পােষ মানাতে শেখে। খাদ্যের জোগান ছাড়াও গৃহপালিত পশুকে তারা যাতায়াতের কাজে ব্যবহার করতে শুরু করে। নতুন পাথরের যুগের মানুষের প্রধান জীবিকা ছিল কৃষি।

[2] কৃষির সূচনা: নতুন পাথরের যুগে বসতিস্থলের পাশে বীজ বা গাছের শিকড় পোঁতা শুরু হয়, এইভাবেই কৃষির সূচনা ঘটে। কৃষিকাজ শুরু হওয়ায় নতুন পাথরের যুগে মানুষ নিজেদের খাদ্য নিজেরাই উৎপাদন করতে শুরু করে। কৃষিকাজ খাদ্যের জোগানকে সুনিশ্চিত করে এবং মানুষ স্থায়ীভাবে বসতি স্থাপন করতে শুরু করে। তাই সবাইকে খাদ্যসংস্থানের জন্য চাষ করতে হত না। 

[3] হাতিয়ার: নতুন পাথরের যুগের মানুষ আগের তুলনায় অনেক উন্নত হাতিয়ার ব্যবহার করতে শুরু করে। এইসময়ে পাথরের নানা ধরনের হাতিয়ার তৈরি শুরু হয়।

[4] চাকার আবিষ্কার: চাকার আবিষ্কার মানুষের জীবনে বৈপ্লবিক পরিবর্তনের সূচনা করে। চাকাকে ব্যবহার করে মাটির পাত্র তৈরি শুরু হয়। চাকাকে কাজে লাগিয়ে মানুষ যানবাহন তৈরির চেষ্টাও শুরু করে। এই যুগে সিন্ধু উপত্যকা অঞ্চলে চাকাযুক্ত গাড়ির প্রচলন ঘটে।


Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Class 6, Class 6 History, অধ্যায় ২ - ভারতীয় উপমহাদেশে আদিম মানুষ

Leave a Comment

Your email address will not be published.