Write a biography of APJ Abdul Kalam using the following points

Write a biography of APJ Abdul Kalam using the following points: [নীচের সূত্রগুলি ব্যবহার করে এ পি জে আবদুল কালামের একটি জীবনী লেখাে:]

Points: Born on 15th October, 1931, Rameswaram; Parents: Jainulabdeen and Ashiamma; Education: B.Sc., Physics and Aerospace Engineering—worked long 40 years for development of ballistic missile launch vehicle-major role in Pokhran nuclear bomb testcalled the father of missile-got Bharat Ratna awardDeath: July 27, 2015

Ans:

BHARAT RATNA APJ ABDUL KALAM 

APJ Abdul Kalam, the great scientist and one of the finest men of modern India, was a ‘Ratna’, a jewel of India. He was popularly called the ‘father of missile’ in India. As the eleventh president of India, he won the hearts of the people. He was the people’s president. He was born in Rameswaram, Tamil Nadu on 15 October, 1931. His father Jainulabdeen was a pious person and mother Ashiamma was a homemaker. His early education started in a school at Rameswaram. Then he was admitted to Madras Institute of Technology. He played a key role in India’s first-ever rocket launching in 1965. He was the leader of the nuclear explosion experiment at Pokhran in 1988. He guided the launching of the surface-to-surface missiles ‘Trishul’, ‘Akash’ and ‘Agni’. He received the ‘Padma Bhushan’ and the ‘Bharat Ratna’, the highest civilian award in India. He wrote many books including ‘Wings of Fire’, his autobiography. He left his mortal body on 27 July, 2015. But his ideal will surely guide us towards his dream destination-India as a knowledge super power.

ভারতরত্ন এপিজে আবদুল কালাম 

আধুনিক ভারতের একজন মহান বিজ্ঞানী ও এক চমৎকার মানুষ এপিজে আবদুল কালাম ছিলেন ভারতের রত্নবিশেষ। ভারতে ‘ক্ষেপণাস্ত্রের জনক’ নামে তিনি জনপ্রিয়। ভারতের একাদশতম রাষ্ট্রপতি হিসেবে তিনি মানুষের মন জয় করে নিয়েছিলেন। তিনি ছিলেন সাধারণ মানুষের রাষ্ট্রপতি। ১৯৩১ খ্রিস্টাব্দের ১৫ অক্টোবর তামিলনাড়ুর রামেশ্বরমে তার জন্ম হয়। তার বাবা জয়নুলআবদিন ছিলেন একজন ধার্মিক ব্যক্তি আর মা আশিয়াম্মা ছিলেন গৃহকত্রী। তাঁর প্রাথমিক শিক্ষা শুরু হয় রামেশ্বরমের একটি বিদ্যালয়ে। এরপর তিনি মাদ্রাজ ইন্সটিটিউট অভ টেকনােলজিতে ভরতি হন। ১৯৬৫ খ্রিস্টাব্দে ভারতের প্রথমবার রকেট উত্থাপনে তার মুখ্য ভূমিকা ছিল। ১৯৮৮ খ্রিস্টাব্দে পােখরানে পরমাণু বিস্ফোরণ পরীক্ষার নেতা তিনিই ছিলেন। ভূমি থেকে ভূমিতে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ—“ত্রিশূল’, ‘আকাশ’ এবং ‘অগ্নি’ তিনিই পরিচালনা করেছিলেন। তিনি ‘পদ্মভূষণ’ এবং ভারতের সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মান ভারতরত্ন’ লাভ করেন। তিনি তার আত্মজীবনী ‘উইংস অভ ফায়ার’ সহ বহু বই লিখেছেন। ২০১৫ খ্রিস্টাব্দে ২৭ জুলাই তিনি তার মরদেহ ত্যাগ করেন। কিন্তু তার আদর্শ নিশ্চিতভাবেই তার স্বপ্নের লক্ষ্যপদ করতে আমাদের পথ দেখাবে—বৌদ্ধিক ক্ষেত্রে সর্বশ্রেষ্ঠ শক্তিধর দেশ হবে ভারত।


Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Uncategorized
,

Leave a Comment

Your email address will not be published.